ঢাকা, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১, বৃহস্পতিবার
ইতালি প্রবাসীদের সেবায় কাজ করবেন নবনিযুক্ত রাষ্ট্রদূত

ইতালি প্রবাসীদের সেবায় কাজ করবেন নবনিযুক্ত রাষ্ট্রদূত

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp
Share on email
ইতালিতে নবনিযুক্ত রাষ্ট্রদূত মোঃ শামীম আহসান

ইতালিস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের নবনিযুক্ত রাষ্ট্রদূত মোঃ শামীম আহসান বাংলাদেশি প্রবাসীদের সেবায় সর্বদা কাজ করে যাওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। 

সম্প্রতি ইতালি দূতাবাসে ইতালি প্রবাসীদের নিয়ে নানা বিষয়ে বিস্তারিত কথা বলেন দেশটিতে নবনিযুক্ত রাষ্ট্রদূত।

ইতালির রোম শহরে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসে কোভিড চলাকালীন সময়ে সেবা প্রদানে দীর্ঘদিন ধরে  নানা ধরনের সমস্যা চলছিল। সময়মতো পাসপোর্ট নবায়ন অথবা নতুন পাসপোর্ট করার জন্য অনলাইনে আবেদন করা ছিল অনেকটাই কঠিন। অবশেষে সকল প্রবাসীদের সমস্যার কথা মাথায় রেখে ইতালিতে নবনিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোঃ শামীম আহসানের উদ্যোগে বিভিন্ন কর্মসূচী গ্রহণ করা হয়েছে। রাষ্ট্রদূত এক অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের জানান, বাংলাদেশ দূতাবাসের পক্ষ থেকে প্রবাসীদের যে কোন সেবা প্রদানে আমরা খুবই স্বচ্ছতার সাথে সকলের পাশে থাকতে চাই। এখানে লুকানো বা এড়িয়ে চলার কিছু নেই। প্রতি শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে সকলের জন্য বাংলাদেশ দূতাবাসের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে এপয়েনমেন্টের জন্য অনলাইনে খুলে দেয়া হয়। এভাবেই পর্যায়ক্রমে চলতে থাকবে এপয়েনমেন্ট গ্রহণের কার্যক্রম এবং তা স্বচ্ছতার জন্য দূতাবাসের ফেসবুক পেজে যার যার ব্যাক্তিগত ফেসবুক প্রোফাইল থেকেও সবাই দেখতে পাবেন। এছাড়াও যদি আরও নতুন কিছু সংযুক্ত করা প্রয়োজন হয় অবশ্যই সেটা করবেন বলে রাষ্ট্রদূত জানান।

এ প্রসঙ্গে দূতাবাসের প্রথম সচিব জনাব শেখ সালেহ আহমেদ বলেন, সবার আগে যে কথাটি অতিব গুরুত্বপূর্ণ তা হচ্ছে বাংলাদেশ দূতাবাস হলেও এটি ইতালিতে অবস্থিত সুতরাং আমাদের ইতালিয়ান সরকারের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হয়। আমাদেরকে প্রতিদিন সর্বমোট ৫০ জনকে সেবা দিতে বলা হয়েছে কিন্তু আমরা সকল প্রবাসীদের কথা চিন্তা করে এক প্রকার সাস্থ্যবিধি লংঘন করেই একদিনে ৩০০/৪০০ জনকেও সেবা দিয়ে থাকি। অনলাইনে এপয়েনমেন্ট নেয়ার ক্ষেত্রে যদি একটি পরিবারে ৫/৭ জন সদস্যও থাকে, সেক্ষেত্রে যে কোন একজন এপয়েনমেন্ট নিলেই হবে, পৃথকভাবে নেয়ার কোন প্রয়োজন নেই। তবে পরিবার বলতে বাবা, মা, স্বামী, স্ত্রী, পুত্র এবং কন্যাকেই বুঝানো হয়েছে। সুতরাং ভাই বোন থাকলে সেক্ষেত্রে অবশ্যই আলাদাভাবে নিতে হবে। যাদের অতি জরুরি পাসপোর্ট সংক্রান্ত কাজ করা দরকার হয় যেমন পাসপোর্ট এর মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে যার কারনে আপনার পেরমেসসো দি সোজ্জর্ণ নবায়নে সমস্যা হবে তাদের জন্যও রয়েছে বিশেষ ব্যবস্থা অর্থাৎ আপনি আপনার পাসপোর্ট এবং পেরমেসসো দি সোজ্জর্ণর ছবিটি স্ক্যান করে দূতাবাসে সরাসরি মেইল করেন নীচের ঠিকানায় পাঠিয়ে দিবেন,  passportappointmentrome@gmail.com। তাহলে যথাসময়ের মধ্যে আপনার কাছে মেইলের মাধ্যমে দূতাবাস থেকে এপয়েনমেন্ট পাঠিয়ে দিবে। আরও কিছু বিশেষ ব্যবস্থা রয়েছে, যার মধ্যে ১৮ বছরের নিচে বয়স দেখিয়ে যারা সামাজিক আশ্রয়ের আবেদন করেন অথবা কোন রাজনৈতিক আশ্রয়ের আবেদন করেন তাদেরও যদি কোন কারণে পাসপোর্ট কর‍তে হয়, সেক্ষেত্রে দায়িত্বরত ইতালিয়ান কর্তৃক অসপিতি নিয়ে আসলে দূতাবাস থেকে এপয়েনমেন্ট ছাড়াই পাসপোর্টের কাজ করে দেয়া হবে।

এছাড়াও যদি কেউ শারীরিক প্রতিবন্ধী, অসুস্থ্য ব্যাক্তি, বয়স্ক, গর্ভবতী বা ছাত্র /ছাত্রী থাকে সেক্ষেত্রে তার জন্য কোন এপয়েনমেন্ট নিতে হবেনা। দূতাবাসে আসলে সরাসরি কাজ করে দিবে বলে সচিব জানান। এই সময় সচিব আরও বলেন, আপনারা হয়তো অনেক সময় বিভিন্নমহল থেকে শুনেছেন, আমরা নাকি গোপনে কোন বাংলাদেশীদের কাফ অফিস বা ইন্টারনেটের দোকানে এপয়েনমেন্ট দেয়ার জন্য এক্সেস দিয়ে রাখি। যার জন্য প্রতি এপয়েনমেন্টের জন্য ৪০/৫০ ইউরো বা তারও বেশি নিয়ে থাকে। এ বিষয়টি নিয়ে আমরা দূতাবাস থেকে চ্যালেঞ্জ করছি, আপনারা কেউ যদি এমন তথ্যের প্রমাণ দিতে পারেন যে, দূতাবাসের কারও সাথে ঐসব ব্যবসায়িকদের যদি কোনরকম সম্পৃক্ততা থাকে, তাহলে সাথে সাথে প্রমাণস্বাপেক্ষে আমরা তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিবো। অনেকেই বলে থাকেন পাসপোর্ট করতে নাকি ২/৩ হাজার ইউরো নিচ্ছে সেক্ষেত্রেও একই বক্তব্য আমাদের। আমরা চাই প্রমাণস্বাপেক্ষে এদেরকে খুঁজে বের করে উপযুক্ত শাস্তির ব্যবস্থা করতে। যাতে করে আর কেউ দূতাবাসের বিরুদ্ধে এসব কথা বলতে না পারে।

এদিকে, দূতাবাসের কাউন্সিলর জনাব মোঃ এরফানুল হক সকল প্রবাসীদের ৪০ ইউরোর বিনিময়ে ওয়েজ আনার্স কল্যাণ বোর্ডের সদস্য হওয়ার জন্য আহ্বান করেন, ইতালিতে কোন প্রবাসী মারা গেলে যেন কারো সহায়তা না নেয়া লাগে।

৪০ ইউরোর একটি কার্ডের বিনিময়ে মৃত্যুর পর আপনি যা পাবেন…

১. দূতাবাস কর্তৃক বিনামূল্যে দেশে মৃতদেহ পাঠানোর সুযোগ।
২. বাংলাদেশ বিমানবন্দরে মৃতদেহ যাওয়ার সাথে সাথেই বিমানবন্দর থেকেই দাফনের খরচের জন্য ৩৫ হাজার টাকা প্রদান।
৩. বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক পারিবারিক সাপোর্ট হিসেবে ৩ লক্ষ টাকা সরাসরি ব্যাংক একাউন্টে প্রেরণ।
৪. সন্তানদের প্রবাসী কোটায় ২% থেকে ৩% লেখাপড়ার জন্য ভর্তি এবং চাকুরির জন্য বিশেষ সুবিধা সহ থাকছে আরও কিছু বিশেষ সুবিধা।

এমকে রহমান লিটন, রোম, ইতালি।

শেয়ার করুন

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp
Share on email

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

প্রবাসীর দেশে ফেরার আনন্দ
ঢাকায় ফ্লাইট পরিচালনা করতে চায় ৬ বিদেশি এয়ারলাইন্স
মালয়েশিয়ায় জাল পাসপোর্টসহ দুই বাংলাদেশি গ্রেপ্তার
১৩ জানুয়ারি থেকে মালয়েশিয়ায় আবারো লকডাউন
সৌদিতে ৮ পরিস্থিতিতে প্রবাসীদের চাকুরি পরিবর্তনের সুযোগ
ঢাকায় ফ্লাইট পরিচালনা করতে চায় ৬ বিদেশি এয়ারলাইন্স
২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ৪ রুটে বাংলাদেশ বিমানের ফ্লাইট বন্ধ
সৌদি আরবে যাওয়া রোহিঙ্গারা পাবেন বাংলাদেশি পাসপোর্ট: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
দুনিয়া দেখি ‘প্রবাস কথা’য়
1
ডেনমার্কে রাজার বাড়ি ‘ফ্রেডরিকসবর্গ প্রাসাদ’
ডেনমার্কে রাজার বাড়ি ‘ফ্রেডরিকসবর্গ প্রাসাদ’
2
১২ তলা জাহাজে ডেনমার্ক থেকে নরওয়ে
১২ তলা জাহাজে ডেনমার্ক থেকে নরওয়ে
3
ইতালীর অপরূপ ভাল দি ফুনেস। চোখ ধাঁধিয়ে দেয়ার মতো সুন্দর জায়গা
ইতালীর অপরূপ ভাল দি ফুনেস। চোখ ধাঁধিয়ে দেয়ার মতো সুন্দর জায়গা
4
প্রবাস কথা থিম সং
প্রবাস কথা থিম সং
5
ইতালিতে ভিন্ন পরিবেশে গানের আয়োজন
ইতালিতে ভিন্ন পরিবেশে গানের আয়োজন
6
ফিনল্যান্ড । বরফের রাজ্যে যখন রোদ হাসে
ফিনল্যান্ড । বরফের রাজ্যে যখন রোদ হাসে
Scroll to Top
দেশভিত্তিক সংবাদ