কানাডায় স্কুলে ২১৫ শিশুর গণকবরের সন্ধান

ছবিঃ বিবিসি

কানাডার একটি পরিত্যক্ত স্কুলে ২১৫টি শিশুর গণকবরের সন্ধান পাওয়া গেছে।

কানাডার একটি পরিত্যক্ত আবাসিক স্কুলে ২১৫ শিশুর গণকবরের সন্ধান পাওয়া গেছে। গণকবর পাওয়া স্কুলটি  আদিবাসীদের জন্য চালু করা হয়েছিল। কামলুপস ইন্ডিয়ান রেসিডেন্সিয়াল নামের স্কুলটি ১৯৭৮ সালে বন্ধ হয়ে যায়। এমন একটি ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করেছেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো।

ফাস্ট নেশন নামে দেশটির আদিবাসীদের বিশ্লেষকরা এ ঘটনার কারণ ও সময়কাল জানার জন্য চেষ্টা করছেন। ৬০’এর দশকে এ বিদ্যালয়ে পড়াশোনা করতেন হার্ভে ম্যাকলিওড। সিএনএনের কাছে এ ঘটনাকে তিনি মর্মান্তিক ও হৃদয়বিদারক হিসেবে উল্লেখ করেছেন।

এদিকে, এ ঘটনাকে দেশের জন্য লজ্জাজনক বলছেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্ট্রিন ট্রুডো। তিনি বলেন, এটা মর্মান্তিক স্মৃতি। আমাদের দেশের ইতিহাসের জন্য এটি কলঙ্কজনক একটি অধ্যায়। আমি এ ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করছি।

অপরদিকে, ব্রিটিশ কলাম্বিয়ার কামলুপস শহরের প্রধান রোসান্নে কাসিমির বলেন, এ ক্ষতি কখনো পূরণ হওয়ার নয়। এমন ঘটনার বিষয়টি কখনো স্কুল প্রশাসনের পক্ষ থেকে আমাদেরকে জানানো হয়নি।

এক সময় কানাডার আবাসিক স্কুলগুলোতে শিক্ষার্থীদের বাধত্যমূলকভাবে থাকতে হতো। আদিবাসী যুবকদের মাঝে নিজেদের বিশ্বাস ও ধ্যান-ধারণা জোরপূর্বক ছড়িয়ে দেয়ার জন্যই এসব স্কুল পরিচালনা করা হতো বলে জানা গেছে। সে সময় পরিচালিত এসব বিদ্যালয়ের মধ্যে সবচেয়ে বড় ছিল কামলুপস ইন্ডিয়ান রেসিডেন্সিয়াল স্কুলটি।

এ স্কুলটি ১৮৯০ সালে চালু করা হয় রোমান ক্যাথলিক প্রশাসনের অধীনে। ১৯৫০ দশকে স্কুলটিতে সর্বোচ্চ ৫০০ জনের মতো শিক্ষার্থী ছিল। পরে ১৯৬৯ সালে স্কুলটি কেন্দ্রীয় সরকার নিজেদের অধীনে নিয়ে নেয়। বন্ধের আগে ১৯৭৮ সাল পর্যন্ত স্কুলটিকে স্থানীয় শিক্ষার্থীদের জন্য আবাসিক ভবন হিসেবে ব্যবহার করা হতো বলে বিবিসির প্রতিবেদনে উঠে এসেছে।

সূত্রঃ বিবিসি।

Leave a Comment

Your email address will not be published.