ডেনমার্কে ফুড রেসিপি নিয়ে কাজ করা বাংলাদেশি বাবু’র সফলতা

ডেনমার্কে ফুড রেসিপি নিয়ে কাজ করেন প্রবাসী বাংলাদেশি দিল মোহাম্মদ বাবু।

ডেনমার্কের রাজধানী কোপেনহেগেনকে স্ক্যান্ডেনেভিয়ার রসনা বিলাসীদের তীর্থস্থান বলা চলে। আর রসনা বিলাসী হিসেবে ডেনিসদের জুড়ি মেলাভার। ঘরে একমাত্র হালকা নাস্তা ছাড়া দিনের দুই বেলা খাবারের জন্য কোপেনহেগেনের ডেনিশরা বেশীরভাগ সময় নির্ভর করতে পছন্দ করেন, রেস্তোঁরা, সুপার সপগুলোর উপর।

তাই এই শহরের ডেনিশরা-তো বটেই প্রবাসীদের বেশীর কর্মসংস্থান হয় হোটেল, রেস্তোরা এবং খাবার তৈরির কোম্পানিগুলোতে। বাংলাদেশী প্রবাসীদের বেশীর ভাগই অর্থ সংস্থানের জন্য এই ফুড ইন্ডাস্ট্রিগুলোতে কাজ করলেও, কারও কারও কাছে ফুড নিয়ে কাজ করা হলো ভালোবাসা, শখ আর উদ্ভাবনীর বিষয়।

যেমন, আমাদের প্রবাস কথা‘র ডেনমার্ক-সংগঠক দিল মোহাম্মদ বাবু। হ্যাঁ, আমাদের বাবু ভাইকে যারা জানেন, তারাঁ বুঝেন তিনি শুধু অর্থ সংস্থানের জন্য কাজ করেন না। বরং তিনি খাবারের নানা বিষয়ে গভীর আগ্রহ ও ভালোবাসা থেকেই কাজ করেন। বিশেষ করে তাঁর আগ্রহের জায়গা হলো “প্রাচ্য ও প্রাশ্চাত্যের খাবার সংস্কৃতির মধ্যে কি করে সংমিশ্রন গঠানো যায়। কিন্তু, উন্নত দেশের প্রেক্ষাপটে কাজটা কি তত সহজ ? এশীয় মসলাদার খাবার আর ইউরোপের মশলা বিহীন খাবারের সাথে নতুন রেসিপি করে, খাবারের স্বাদ ও মান বজায় রাখা।

ভাবতে গেলেই বিষয়টা সহজ না, কঠিনও বটে ! আর দীর্ঘদিন ডেনিশ খাবারের রেসিপি নিয়ে কাজ করে সেই কঠিন কাজটাকে সহজ করে নতুন খাবারের মজাদার রেসিপি করেছেন, আমাদের প্রবাস কথা‘র ডেনমার্ক সংগঠক, বাবু ভাই। যাতে তিনি সংমিশ্রন গঠান দক্ষিন এশীয়ার মসলাযুক্ত খাবারের সাথে নরডিক মসলা বিহীন খাবারের। তারঁ নতুন রেসিপির এই খাবারগুলো ডেনিশ ক্রেতাদের এতই আকৃষ্ট করেছেন যে, এই প্রথম ডেনমার্কের সুপার শপের র‍্যাকে জায়গা পেল কোন প্রবাসী বাঙালীর তৈরীকৃত প্রথম খাবার।

সাড়া ডেনমার্ক জুড়ে জনপ্রিয় ন্যাটো, ফুটেক্স সুপার সপগুলোতে গেলে তৈরীকৃত খাবারের দেখা মিলবে অন্যান্ন খাবারের সাথে আমাদের বাবু ভাইয়ের নতুন রেসিপির নানা পদের মজাদার খাবার। ডেনিশ ফুড ইন্ডাস্ট্রিতে কর্মরত হাজারো বাংলাদেশীদের মাঝে একজন বাংলাদেশীর তৈরী রেসিপি সারা দেশের সুপার সপে স্থান করে নেওয়ার এই ব্যাপার সমস্ত বাংলাদেশী প্রবাসীদের জন্য গৌরবের বিষয়ও বটে।

কারন, সুপার সপে বিখ্যাত বিখ্যাত ফুড কোম্পানির ফুড গবেষকদের খাবারই সাধারনত স্থান পায়, আর ক্রেতা সমাদৃত হয়। এক্ষেত্রে বাবু ভাই তাঁর অক্লান্ত প্ররিশ্রম, প্রচন্ড ভালোবাসার জায়গা থেকে কাজ করে এই জায়গায় পৌছানোটা সত্যিই প্রশংসার ও গর্বের।

তাই, যখন ন্যাটো, ফুটেক্সের মত বিখ্যাত সুপার সপের তৈরীকৃত খাবারের র‌্যাকে এক জন বাংলাদেশীর রেসিপিকৃত খাবার দেখি মনটা গর্বে ভরে যায়। খাবার নিয়ে বাবু ভাইয়ের প্রচন্ড আগ্রহের জায়গা এবং তারঁ এই অর্জনকে, আমরা ডেনমার্ক প্রবাসী বাংগালী কমিউনিটির পক্ষ হতে শুধু সন্মান নয় অভিনন্দন অবশ্যই। তিনিই ডেনমার্কে প্রবাসী বাংঙ্গালীদের একজন উজ্জলমুখ আর তারঁ এই শ্রমের গর্বে গর্বিত বাংলাদেশও। বিষয়টা প্রবাস কথার হাজার হাজার প্রবাসী শ্রম-যোদ্ধাদের জন্য ভীষন অনুপ্রেরণারও বটে। এ রকম হাজারো প্রবাসী বিশ্বের নানান দেশের শ্রম ক্ষেত্রে তাদের প্রতিভার স্বাক্ষর রাখুক, এই কামনায়।

  • শহিদুল ইসলাম টিপু, কোপেনহেগেন, ডেনমার্ক। 

৪ thoughts on “ডেনমার্কে ফুড রেসিপি নিয়ে কাজ করা বাংলাদেশি বাবু’র সফলতা”

  1. Pingback: chsitey the gay dating site

Leave a Comment

Your email address will not be published.