বাংলাদেশকে ১১ মিলিয়ন ডলার দেবে যুক্তরাষ্ট্র

বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত আর্ল আর. মিলার

করোনা মোকাবিলায় জরুরি সহায়তা হিসেবে বাংলাদেশকে ১১ দশমিক ৪ মিলিয়ন ডলার দেবে যুক্তরাষ্ট্র। 

বাংলাদেশের করোনা মোকাবিলায় যুক্তরাষ্ট্র সরকার বাংলাদেশকে আরও ১১ দশমিক ৪ মিলিয়ন ডলার দিবে। যুক্তরাষ্ট্রে আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা ইউএসএআইডি’র মাধ্যমে এই সহায়তা দেওয়া হবে বলে গতকাল সোমবার (৯ আগস্ট) ঢাকার মার্কিন দূতাবাস এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, এই সহায়তা জীবন-রক্ষাকারী মেডিকেল সরঞ্জাম ও অক্সিজেন সরবরাহ ও কার্যকর করোনার টিকা প্রচারাভিযানের কাজে দিবে। পাশাপাশি দেশব্যাপী ক্রমবর্ধমান রোগীদের মানসম্মত চিকিৎসা প্রদান ও সেবার মান বাড়াতে ভূমিকা রাখবে বলে মনে করছেন তারা।

রাষ্ট্রদূত আর্ল মিলার বলেন, আমেরিকান রেসকিউ প্ল্যানের (আমেরিকান উদ্ধার পরিকল্পনা) মাধ্যমে দেওয়া এই বর্ধিত অনুদান বাংলাদেশকে করোনা মোকাবিলায় আমাদের দেওয়া চলমান সহায়তারই অংশ। তিনি বলেন, আমেরিকা বাংলাদেশের জনস্বাস্থ্য উন্নয়নে বিগত পাঁচ দশক ধরে ঘনিষ্ঠ অংশীদার হিসেবে কাজ করে আসছে।

করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ের ক্ষেত্রে এই বিশেষ চ্যালেঞ্জিং মুহূর্তে আমাদের অংশীদারিত্ব অন্য যেকোনো সময়ের চেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ বলে রাষ্ট্রদূত জানান। যুক্তরাষ্ট্রের দেওয়া করোনার সহায়তার মধ্যে ৫৫ লাখ ডোজ মডার্না টিকা ও দেশব্যাপী জাতীয় টিকা প্রচারাভিযান কার্যক্রম পরিচালনার সামর্থ্য বৃদ্ধিতে সহায়তা করা অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

সম্প্রতি নতুন রাষ্ট্রদূত দেশে আসার পর থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সাথে বাংলাদেশের সম্পর্ক আরও বাড়ছে বলে সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন। যার ফলে করোনার টিকাসহ নানা ধরণের সহায়তা পাচ্ছে বাংলাদেশ। যা সামনের সময়ে অব্যাহত থাকবে বলে সবাই আশা করছেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published.