মালয়েশিয়ায় কর্মীদের কল্যাণে হাইকমিশন ও সকসো’র অঙ্গীকার

প্রবাসী কর্মীদের সুবিধা নিশ্চিত করতে মালয়েশিয়ার জহুর প্রদেশের সকসো (বিমা কোম্পানি) কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠক করেছে মালয়েশিয়াস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশন।

১৮ নভেম্বর বুধবার বেলা ১১টায় মালয়েশিয়ায় কর্মরত বাংলাদেশি কর্মীদের নিরাপত্তা ও কল্যাণ নিয়ে পারকেসু ভবনে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে বাংলাদেশ হাইকমিশনের পক্ষে হাইকমিশনার মো. গোলাম সারোয়ারের সঙ্গে শ্রমকল্যাণ উইংয়ের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকে জানানো হয়, বাংলাদেশি কর্মীদের কর্ম ও ত্যাগের স্বীকৃতি ও মূল্যায়ন স্বরূপ বিভিন্ন উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এর অংশ হিসেবে চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে আগস্ট মাস পর্যন্ত দুর্ঘটনা ও মৃত্যু (মরদেহ দাফনসহ) বাবদ জহুর প্রদেশের অফিস থেকে মোট ২৬৯ জন সুবিধা পেয়েছেন। এটি চলমান প্রক্রিয়া বলে জানানো হয়েছে।

হাইকমিশনের নিরলস প্রচেষ্টায় মালয়েশিয়া সরকার নিজ দেশের কর্মীদের পাশাপাশি বাংলাদেশসহ অন্যান্য বিদেশি কর্মীদের সোশ্যাল সিকিউরিটি অর্গানাইজেশনের (সকসো) সদস্য করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে।

এ সংস্থার  সদস্য হলে কর্মীরা কর্মকালীন দুর্ঘটনা বা কর্মস্থলের অবস্থার কারণে অসুস্থ হলে বিনামূল্যে চিকিৎসা এবং পুনর্বাসন সুবিধা পাবেন। কর্মকালীন দুর্ঘটনা বা কর্মস্থলের পরিবেশের কারণে অস্থায়ীভাবে অক্ষম হলে নির্ধারিত দৈনিক ভাতা এবং অবিরাম উপস্থিতি ভাতা পাবেন। এমনকি স্থায়ীভাবে অক্ষম হয়ে দেশে অবস্থান করলেও আজীবন ভাতা পাবেন।

একই কারণে মৃত্যু হলে দেশে থাকা পরিবার আজীবন সুবিধা পাবে। এছাড়া বৈধভাবে থাকা কোনো প্রবাসী কর্মীর মৃত্যু হলে তার মরদেহ দেশে পাঠানোর খরচ দেবে ওই প্রতিষ্ঠান।

আইন অনুযায়ী নিয়োগকর্তা বাংলাদেশের কর্মীদের সকসোর সদস্য পদ নিশ্চিত করছেন। এই সুবিধা পাওয়ার জন্য নানান প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে হাইকমিশন ও সকসো অফিস কাজ করবে।

বৈঠকে সকসো’র সিইও জানান, ২০১৯ সাল থেকে এ পর্যন্ত  ৫,০৬,১৬৩ জন বাংলাদেশি কর্মী সকসো’র মেম্বারশিপ লাভ করেছেন।  এ পর্যন্ত  অস্থায়ী অক্ষমতাবরণকারী ৩১৭৮ জনকে ৮ কোটি ৮১ লাখ টাকা, স্থায়ী পঙ্গুত্ব বরণকারী ৬৮ জনকে ৪ কোটি ২১ লাখ টাকা, ২১৯টি মৃতদেহ প্রেরণ বাবদ ২ কোটি ২ লাখ ৬৪ হাজার টাকা প্রদান করা হয়েছে।

মার্চ ২০২১ থেকে ৩১ অক্টোবর ২০২১ পর্যন্ত  কর্মক্ষেত্রে কোভিড-১৯ ভাইরাসে আক্রান্ত ৮৫০ জনকে ৯৮ লাখ ৯৭ হাজার টাকার সমপরিমাণ  অর্থ সুবিধা প্রদান করা হয়েছে।

 

Leave a Comment

Your email address will not be published.