ঢাকা, ২৬ অক্টোবর ২০২০, সোমবার
হংকংয়ের ৩০ বাসিন্দাকে নাগরিকত্ব দেওয়ার প্রস্তাব যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রীর

হংকংয়ের ৩০ বাসিন্দাকে নাগরিকত্ব দেওয়ার প্রস্তাব যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রীর

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp
Share on email
হংকংয়ের ৩০ লাখ বাসিন্দাকে নাগরিকত্ব দেওয়ার প্রস্তাব দিলো যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন।

হংকং নিরাপত্তা আইন নিয়ে ব্যাপক আন্দোলন বিক্ষোভ হলেও, গত মঙ্গলবার চীনের পার্লামেন্টে এই আইন পাস হয়েছে। ইতিমধ্যে এই আইনের স্বাক্ষর করেছেন চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। হংকং নিরাপত্তা আইনের কারণে স্বায়ত্তশাসিত হংকংয়ের ওপর চীনের কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা এবং হংকং এর স্বাধীনতা হুমকির মুখে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছে পুরো বিশ্ববাসী।

পাস করা এই নতুন জাতীয় নিরাপত্তা আইনের প্রতিবাদে আবারও প্রবল বিক্ষোভ ফেটে পড়েছে পুরো হংকং। এমন ঘটনায় হংকং নাগরিকদের পাশে দাঁড়ানোর ঘোষণা দিলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন।

প্রধানমন্ত্রী এ বিষয়ে ঘোষণা দিয়ে বলেছেন,  চীনের বিশেষ প্রশাসনিক অঞ্চল হংকংয়ের ৩০ লাখ বাসিন্দাকে ব্রিটেনে গিয়ে বসবাস করা এবং ভবিষ্যতে নাগরিকত্ব নেয়ার সুযোগ দেওয়া হবে।

গত বুধবার হাউস অব কমন্সে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বলেন, ‘(চীনের) নতুন ‍নিরাপত্তা আইনের কারণে হংকংবাসীর স্বায়ত্তশাসন লঙ্ঘন হচ্ছে এবং ভুক্তভোগীরা চাইলে আগের এই ব্রিটিশ উপনিবেশ ছেড়ে ব্রিটেনে চলে আসতে পারে।’

তিনি আরও বলেন, ‘সাড়ে তিন লাখ ব্রিটিশ পাসপোর্টধারী এবং আরও ২৬ লাখ যোগ্য আবেদনকারীকে আগামী পাঁচ বছর ব্রিটেনে গিয়ে বসবাসের সুযোগ দেয়া হবে। তার এক বছর পরে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা ব্রিটেনের নাগরিকত্বের জন্য আবেদন জানাতে পারবেন।’

অন্যদিকে হংকংয়ের যেসকল বাসিন্দাদের কাছে ব্রিটিশ ন্যাশনাল ওভারসিজ পাসপোর্ট রয়েছে, তাদের ৮০-এর দশকে বিশেষ কিছু সুযোগ সুবিধা দেয়া হয়েছিল। তবে বর্তমানে এর অনেকাংশই কার্যকর নয়। তবে এই পাসপোর্ট যাদের রয়েছে, তারা এখনও ভিসা ছাড়াই ছয় মাসের জন্য ব্রিটেনে কাটাতে পারেন।

বরিস জনসন ঘোষণা দিয়েছেন, নতুন নিয়মে অনাবাসী ব্রিটিশ নাগরিক এবং তাদের ওপরে নির্ভরশীলরা পাঁচ বছরের জন্য ব্রিটেনে গিয়ে বসবাসের পাশাপাশি কর্মসংস্থান এবং পড়াশোনার সুযোগ পাবেন। পাঁচ বছর অতিক্রান্ত হওয়ার পর তারা স্থায়ী বসবাসের জন্য আবেদন করতে পারবেন। তার একবছর পরই নাগরিকত্বের আবেদন করা যাবে।

তবে চীনের এই সিদ্ধান্তের বিষয়ে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী অভিযোগ করেন, হংকংয়ের স্থানীয় প্রশাসন মঙ্গলবার যে নতুন আইন পাস করার কথা জানিয়েছে, তা ১৯৮৫ সালে ব্রিটেন এবং চীনের মধ্যে হওয়া যৌথ ঘোষণার পরিপন্থী।

নতুন এই আইন স্পষ্টতই দুই দেশের আইনি চুক্তির খেলাপ করেছে বলেও ক্ষোভ প্রকাশ করেন বরিস জনসন। সেই চুক্তি অনুযায়ী, ১৯৯৭ সালে হংকংয়ের হস্তান্তর হওয়ার পর ৫০ বছর পর্যন্ত নির্দিষ্ট কয়েকটি ক্ষেত্রে হংকং এবং সেখানকার বাসিন্দাদের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করতে পারবে না চীন।

বরিস জনসন বলেন, যৌথ ঘোষণার মাধ্যমে হংকংকে দেয়া স্বায়ত্তশাসন এবং স্বাধীনতাকে প্রশ্নের মুখে ফেলে দিয়েছে এই নতুন আইন।

১৯৯৭ সালে ব্রিটিশ শাসন থেকে হংকংকে চীনের কাছে হস্তান্তর করা হয়। তখন থেকেই ‘এক দেশ, দুই নীতি’ পদ্ধতির আওতায় স্বায়ত্তশাসনের মর্যাদা ভোগ করে আসছে হংকং।

শেয়ার করুন

Share on facebook
Share on twitter
Share on whatsapp
Share on email

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

২৯ অক্টোবর থেকে দিল্লী, কলকাতা রুটে বিমানের ফ্লাইট চালু
সিঙ্গাপুরে নতুন করোনায় আক্রান্ত ৭, মোট মৃত্যু ২৮
বাংলাদেশিদের জন্য দ্রুত চালু হচ্ছে মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার
সিঙ্গাপুরে “প্রেসিডেন্ট’স এওয়ার্ড-২০২০” পেলেন বাংলাদেশের ওমর ফারুকী শিপন
১ লা নভেম্বর থেকে ওমরাহর সুযোগ বিদেশিদের
বৈরুত বিস্ফোরণের স্মৃতি নিয়ে দেশে ফিরেছে ১১০ নাবিক
প্রতিবন্ধীকে রাস্তা পার করে কাতারে সম্মাননা পেলেন বাংলাদেশি ইয়াসিন
সৌদি আরবের সাথে সম্পর্ক উন্নয়ন ও দক্ষ কর্মী পাঠানোর আশ্বাস রাষ্ট্রদূতের
দুনিয়া দেখি ‘প্রবাস কথা’য়
1
ডেনমার্কে রাজার বাড়ি ‘ফ্রেডরিকসবর্গ প্রাসাদ’
ডেনমার্কে রাজার বাড়ি ‘ফ্রেডরিকসবর্গ প্রাসাদ’
2
১২ তলা জাহাজে ডেনমার্ক থেকে নরওয়ে
১২ তলা জাহাজে ডেনমার্ক থেকে নরওয়ে
3
ইতালীর অপরূপ ভাল দি ফুনেস। চোখ ধাঁধিয়ে দেয়ার মতো সুন্দর জায়গা
ইতালীর অপরূপ ভাল দি ফুনেস। চোখ ধাঁধিয়ে দেয়ার মতো সুন্দর জায়গা
4
প্রবাস কথা থিম সং
প্রবাস কথা থিম সং
5
ইতালিতে ভিন্ন পরিবেশে গানের আয়োজন
ইতালিতে ভিন্ন পরিবেশে গানের আয়োজন
6
ফিনল্যান্ড । বরফের রাজ্যে যখন রোদ হাসে
ফিনল্যান্ড । বরফের রাজ্যে যখন রোদ হাসে
Scroll to Top
দেশভিত্তিক সংবাদ